ওয়াহিদা খন্দকার

ধূপের গন্ধ আসছে, তুমি বেদ লিখছো।
খাগের কলমে সেতু বাঁধছি আমিই।
কাঙালিকে পরপার করতে চাও।
তবু সে সুগন্ধেই বেদ রচিত হচ্ছে।
রাঁধুনি তো নিজের স্বাদেই রান্নায় বসায়।

হেলান দিয়ে থাকি নম্র স্মৃতিতে।
ক্ষতগুলো কথা বলার সময় পায় না তাই।
লেখা হচ্ছে লোকসাহিত্যও কিছু, রোগের মতো।

আলপথ নিঃস্ব নয়, সকিরণ শিশির হাতে এখনও।
আর আছে অপেক্ষমাণ গোধূলি,দিনান্ত হলেও
প্রসবের উত্তেজনায় সুরেলা আজান।

তুমি বেদ লিখে যাও কবি
আমি লিখি লোক সাহিত্য, অপেক্ষার।