ভ্রম

পৃথিবীর সব মৃত্তিকায় মূর্তি গড়া যায় না

আমি মাটি খুঁজি, বাসনালয় মাটি
ক্রিয়া-শক্তি নিরাময় মাটি।

আশ্রয়ের চারপাশে প্রস্তরীভূত মাটি
বল্মীক করছে স্থাপনা– কামনাময় উন্মাদনা
বীর্য নিক্ষিপ্ত হচ্ছে প্রপঞ্চে
মাটি শুদ্ধ কোথায় চিদাকাশে!

মনই মাটি শুদ্ধ রমন খাঁটি
বৈভব-মুক্ত মন অযোনি লীলায় যাপন

এই মৃত্তিকায় গড়ে ওঠে বিশুদ্ধ প্রতিমা, চক্ষুদান।

 

প্রণয়

আমি বলতেই পারবো না ভোর রাতে
চাঁদ কখন ডুবে গেছে!
স্ত্রীর গায়ে হাত লাগার পর বুঝলাম
পূর্ণতার পথে আছি তবে, প্রণয় জেগেছে।

দু’জন মানুষ (স্ত্রী পুরুষ) পাশাপাশি থাকলে
শরীর এক হয়, হৃদয়ও কাছাকাছি
অভ্যাস বুকে লাগে–

সেই ফাঁকে বালিশ বিছানা, জলের গ্লাস
কুশল বিনিময় করে, হাসে।

আবার কোনওদিন (পরদিনও হয়)
স্ত্রী হাতে হাত রাখে
গৌরীপট্টে ওম ধ্বনি ওঠে

পরের রাতে চাঁদ ফিরে আসে
ভোরে কখন ডুবে যায়…