বিস্ফোরণ

পোস্টকার্ডে দেখেছিলাম মায়ের নাম,
মায়াবতী খুলেছিল লাল

সেদিন থেকে বাবাকে নক্ষত্র-রাতে পেয়েছি
নক্সি-কাঁথা জুড়ে নকশাল ঠোঁট

ওরা মহাভারতের কথা শোনেনি
ওরা নাগাসাকির শেষ স্রোত

উঠোনে আলতা দেখে মায়াবতী চুপ

আমি জানি না মা…
রক্ত, পুড়তে পারে কী না!

 

ডার্ক-ফ্যান্টাসি

তুমি যেমনটা গন্ধ রেখে দাও দেয়ালের শরীরে
চাঁদ-সীমানা টপকে ফেলে প্রশস্তি আমেজ।

ততটাই রোদ চুমুক দিয়েছে ডাকঘর
ছিঁড়ে গেছে বয়স-পূর্ত মেঠো গীতবিতান।

তুমি যদি গান শোনাতে
হাওয়ায় লিখতাম যৌবন

কলেজস্ট্রিটের এ মাথা ও মাথা ফুটে উঠত
আমাদের তীব্র রজনীগন্ধা।

তুমি যেমনটা গন্ধ রেখে যাও দেয়ালের শরীরে
আমার প্রশস্তি প্রশ্ন তোলে সর্বক্ষণ।