11206000_1456295311328382_4631279951288620442_n

                                                                    রবeবার, ২০.০৯.২০১৫, বর্ষ ১, সংখ্যা ২৩

‘মুখপোড়া’ যে একটা ঘুড়ির নাম- সে জেনেছিলাম বহু পরে৷ সে ঘুড়ির সঙ্গে ততোদিনে কতবার দেখা হয়েছে৷ কতবার হাতের সুতো থেকে সে ফস্কে চলে গিয়েছে অন্য পাড়ায়৷ নিজেরাও হয়ত মনে মনে কতবার মুখপোড়া বলেছি তাকে৷ কিন্তু মাথার উপর ওই কালো চাঁদিটার জন্য তার যে এমন নাম, জানতাম না৷ সত্যি বলতে কত ঘুড়ির যে কতরকম নাম, তার কটারইবা খোঁজ রেখেছি৷ এই বাংলা গানের দৌলতে ঘুড়ির কথা বললেই, পেটকাঠি, চাঁদিয়ালের নাম ভেসে ওঠে৷ ঘুড়ির সংসারে সদস্য কিন্তু অনেকে৷ বহু বিচিত্র তাদের নাম৷কয়েক দশক আগেও,

রানা দাস সম্পাদক-কলকাতা24x7
রানা দাস
সম্পাদক-কলকাতা24×7

সে সব নাম দাদাদের থেকে বাহিত হয়ে চলে আসত ভাইদের কাছে৷ মাঞ্জার উপকরণ, কতটা কাচের পরিমাণ থাকলে সুতোর ধার বাড়বে সে সব হিসেবনিকেশও চালান হয়ে যেত৷ পাড়ার ঝামেলা জিইয়ে থাকত৷ দাদাদের হাত থেকে সে উত্তরাধিকার নিয়ে নিত লাটাইয়ে হাতপাকা ভাইয়ের দল৷  আজকাল তো সে সব কাটা ঘুড়ির মতোই ভোকাট্টা৷

ভোকাট্টায় মনে পড়ল, বেশ কয়েক বছর আগে একটি বাংলা গানে ভোকাট্টা শব্দটা আবার যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছিল৷ পাড়াকাঁপানো ভোকাট্টা নিউক্লিয়ার ফ্যামিলির যুগে গানেই ঠাঁই খুঁজে নেবে তাতে আর অবাক হওয়ার কী আছে৷ তবে সাহিত্য সিনেমায় বরাবরই ঘুড়ির কদর আছে৷ নানা মন্তাজে ফিরে ফিরে এসেছে ঘুড়ি৷ ঘুড়ি সেই অর্থে বহুমাত্রিকও বটে৷ মুক্তি থেকে শুরু করে আশা, হতাশা, শুরু থেকে সমাপ্তি বহু কিছু সে বুঝিয়ে দিতে পারে৷ হিন্দি সিনেমায় তো প্রেমাষ্পদের স্পর্শ বুঝিয়ে দিতেও ঘুড়ির দরকার পড়েছিল৷ ‘আর্থ’-এর সে দৃশ্য নিশ্চয়ই আজও অনেকের স্মৃতিতে টাটকা৷

অতঃপর ঘুড়ি গেল কোথায়? এমনিতে তো শহরের পরিধি না পেরলে তার দেখা মেলা ভার৷ শহুরে শৌখিন ছাদেরা যা দু’একটাঘুড়িকে জায়গা দেয়, কিন্তু তা এতটাই নিয়মমাফিক, এতখানি ফর্ম্যাল যে, সেখানে উন্মাদনাটাই ভ্যানিস৷ এদিকে ঘুড়িরা নাকি সব রাতবিরেতে উড়তে থাকে৷ আর লাটাই হাতে নিয়ে বসে থাকে দক্ষিণী রিমেকের বাংলা সিনেমার ঝলমলে নায়িকা৷ ‘দ্য কাইট রানার্স’-এ মুখগোঁজা রামগড়ুরের ছানার দল গুগলে ‘কাই পো চে’ লিখে সুশান্ত মালহোত্রার ছবি দেখে৷

এমন সময়ে নিয়ম মেনেই বিশ্বকর্মা পুজো আসে, আর সোশ্যাল মিডিয়া উপচে পড়ে ঘুড়ির নস্ট্যালজিয়া৷ এই দুটো দিন আগও নিশ্চয়ই সকলে তার সাক্ষি হয়েছেন৷ সেই নস্ট্যালজিয়াকে  সঙ্গি করেই এবার আমাদেরও সংখ্যা জুড়ে ঘুড়ি৷

উড়ান দিল না ভোকাট্টা হল, সে আপনাদের মতামত৷ জানাতে ভুলবেন না৷

রানা দাস

সম্পাদক

কলকাতা ২৪x৭