11206000_1456295311328382_4631279951288620442_n

                                                                    রবeবার, ১৩.০৯.২০১৫, বর্ষ ১, সংখ্যা ২২

পুজোসংখ্যা এখন আর শুধু পুজো এলে পাওয়া যায় না, ঢের ঢের আগে থেকেই বাজারে মেলে৷ কিন্তু তবু তো পাওয়া যায়৷ কিন্তু পুজোর গান? পুজোর গান যেন এখন আর আগের মতো নেই৷ পুজোয় বেশ কিছু সংখ্যক অ্যালবাম রিলিজ হয় ঠিকই, কিন্তু তা নেহাতই যেন একটা মুক্তির সময় মাত্র৷ আলাদা করে পুজোর গানের তাৎপর্য যেন দিনে দিনে হারিয়ে যাচ্ছে৷

রানা দাস সম্পাদক-কলকাতা24x7
রানা দাস
সম্পাদক-কলকাতা24×7

আরও তলিয়ে দেখলে দেখা যাবে, পুজোর গান তো দূরের কথা, বাংলা গানের, বেসিক অ্যালবামের বাজারই গভীর সংকটে৷ এ বিষয় নিয়ে  বেশ কয়েকবছর ধরেই  নানা আলোচনা চলছে৷ নানা কারণ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে, কিন্তু সেই অর্থে এখনও কোনও আলোর দিশা পাওয়া যায়নি৷ এরই মধ্যে আরও একটা পুজো প্রায় এসে পড়ল৷ আবার মণ্ডপে মণ্ডপে বাজবে হিন্দি ছবির গান৷ কোথাও বা বাজবে না৷ আবার গান ডাউনলোড হবে৷ ফুটপাথে পাইরেটেড সিডি বিক্রি হবে৷ বাংলা গান যে তিমিরে সে তিমিরেই থেকে যাবে৷

অথচ পুজোর গানের কী সমৃদ্ধ অতীতই না আমাদের সঙ্গী৷ অনুরোধের আসর, শারদ অর্ঘ্যের পাতা,  স্বর্ণযুগের গান, সব মিলিয়ে আজও পুজোর গানের কথা মনে হলেই আমরা অতীতচারী হয়ে উঠি৷ কিন্তু সময় এসেছে সামনে তাকানোর৷ অনেক শিল্পীই মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন পুজোর গান থেকে৷ তা সত্ত্বেও এবারও বহু পুজো অ্যালবাম তৈরি হচ্ছে৷ সেগুলো সঙ্গে নিয়েই পুজোর গানের রেওয়াজ ফেরাতে আমরা শ্রোতারা কতটা উদ্যোগী হবে, এই সংখ্যায় সে প্রশ্নের মুখ আমাদের নিজেদের দিকেই ফেরানো থাক৷

রানা দাস

সম্পাদক

 কলকাতা ২৪x৭